এসডিআর (SDR)

এসডিআর এর পূর্ণ রুপ হলো Software Defined Radio, বাংলায় সফটওয়্যার চালিত রেডিও বলা যায়। জগদীশ চন্দ্র বসু অথবা মার্কনি আবিস্কৃত রেডিও যুগে যুগে নানাভাবে বিবর্তিত হয়েছে। শুরুর দিকের কৃষ্টাল রেডিও খূব বড় কিছু ছিলো না। কোন একসময় রেডিও’তে ব্যবহার করা হতো ভ্যাকুয়াম টিউব। ফলে রেডিও বা বেতার যন্ত্রের আকার হতো বিশাল। এরপর ট্রানজিষ্টর আবিস্কারের পর রেডিও সেটের আকার অপেক্ষাকুত ছোট হয়ে এসেছিলো। আর এখন আইসি ব্যবহারের ফলে রেডিও’র আকার আবার অনেকটাই ছোট হয়ে এসেছে। এসডিআর বেশ আগে থেকেই প্রচলিত। অনেক কমিউনিকেশন রিসিভার কম্পিউটার এর মাধ্যমে পরিচালনা করা যেতো বেশ আগে থেকেই। তবে এসব রিসিভারের দাম ছিলো অনেক। পরবর্তীতে বেশ কিছু রেডিও তৈরী হয় যেগুলোতে সাধারণ (কনভেনশনাল) রেডিও’র মতো কোন নব / সুইচ জাতীয় কিছু ছিলো না। কেবল থাকতো এন্টেনা ইনপুট এবং কম্পিউটারে সংযোগ দেয়ার জন্য ছিলো আউটপুট। আর ছিলো এই সেটের উপযোগী বিশেষ সফটওয়্যার।

ইউরোপে DVB-T (Digital Video Broadcasting — Terrestrial) বিস্তারের সাথে সাথে এর উপযোগী টিউনার তৈরী শুরু হয়। RTL2832U চিপসেট বেসড এসব টিউনার একসময় হবিষ্টদের কাছে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করে। খূব সম্ভবত (লিংক পাচ্ছি না) রাশান হবিষ্টরা প্রথম দেখতে পান যে এই চিপসেট এ ডিভিবি-টি সমর্থিত ফ্রিকোয়েন্সির বাইরে বিশাল একটি স্পেকট্রাম উন্মুক্ত। মানে এটি ব্যবহার করে ৫০ মেগাহার্টজ থেকে ১.৭ গিগাহার্টজ পর্যন্ত টিউন করা যেতে পারে। আর এর ফলে এসডিআর এর ব্যয় নেমে আসে সাধারণ ব্যবহারকারীর নাগালের মধ্যে। পেনড্রাইভ এর মতো দেখতে একটি ডঙ্গল দিয়েই এখন পূরো একটি রেডিও পাওয়া যাচ্ছে পিসি বা ল্যাপটপে। আপকনভার্টার ব্যবহার করে লং ওয়েভ, মিডিয়াম ওয়েব, শর্টওয়েভ সহ বিভিন্ন এমেচার রেডিও ব্যান্ডগুলো শোনা যাচ্ছে।

বর্তমানে RTL-SDR ডঙ্গল কিনতে পারবেন আলি এক্সপ্রেস অথবা আমাজন থেকে। অবশ্য দারাজ এর মাধ্যমেও চীন থেকে আনতে পারেন।

ব্যাকপ্যাকে পেতে পারেন এই RTL-SDR (লং ওয়েভ-মিডিয়াম ওয়েভ-শর্ট ওয়েভ নাই, এফএম এবং হায়ার ব্যান্ডগুলি পাবেন। এরকম একটি এসডিআর দিয়ে ঢাকার এফএম ষ্টেশনগুলি শুনতে পারেন।

আলি এক্সপ্রেস এ পাবেন একই রকম RTl-SDR, দাম প্রায় অর্ধেক।

উপরের ভিডিও’তে RTL-SDR ডঙ্গল  এবং SDR# (উচ্চারণ এসডিআর শার্প) সফটওয়্যার ব্যবহার করে ঢাকার কিছু এফএম চ্যানেল রিসিভ করা হয়েছে। এই ডঙ্গলে কোন আপকনভার্টার নেই, তাই ৫০ মেগাহার্টজের কোন ফ্রিকোয়েন্সি রিসিভ করা যায় না। এন্টেনা হিসেবে সাথে যে ছোট এন্টেনাটি আছে সেটাই ব্যবহার করা হয়েছে।

কি ভাবে ইনষ্টল করবেন : RTL SDR এর জন্য একটি আদর্শ সাইট হলো এই সাইটটি। এই পেজ এ আপনি ইনষ্টল করার ষ্টেপ বাই ষ্টেপ ইন্সষ্ট্রাকশন পাবেন। নোট : ডঙ্গলের সাথে দেয়া সিডি থেকে কিছু ইনষ্টল করবেন না।

কেনার কথা ভাবছেন ? আপাতত আমার পরবর্তী পোষ্ট পড়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। এরপর কেনার সিদ্ধান্ত নিন। আপাতত বিদায়।

ভাল থাকুন।

রিফাত জামিল ইউসুফজাই

জাতিতে বাঙ্গালী, তবে পূর্ব পূরুষরা নাকি এসেছিলো আফগানিস্তান থেকে - পাঠান ওসমান খানের নেতৃত্বে মোঘলদের বিরুদ্ধে লড়াই করতে। লড়াই এ ওসমান খান নিহত এবং তার বাহিনী পরাজিত ও পর্যূদস্ত হয়ে ছড়িয়ে পড়ে টাঙ্গাইলের ২২ গ্রামে। একসময় কালিহাতি উপজেলার চারাণ গ্রামে থিতু হয় তাদেরই কোন একজন। এখন আমি থাকি বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায়। কোন এককালে শখ ছিলো শর্টওয়েভ রেডিও শোনা। প্রথম বিদেশ ভ্রমণে একমাত্র কাজ ছিলো একটি ডিজিটাল রেডিও কেনা। ১৯৯০ সালে ষ্টকহোমে কেনা সেই ফিলিপস ডি ২৯৩৫ রেডিও এখনও আছে। দিন-রাত রেডিও শুনে রিসেপশন রিপোর্ট পাঠানো আর QSL কার্ড সংগ্রহ করা - নেশার মতো ছিলো সেসময়। আস্তে আস্তে সেই শখ থিতু হয়ে আসে। জায়গা নেয় ছবি তোলা। এখনও শিখছি এবং তুলছি নানা রকম ছবি। কয়েক মাস ধরে শখ হয়েছে ক্র্যাফটিং এর। মূলত গয়না এবং নানা রকম কার্ড তৈরী, সাথে এক-আধটু স্ক্র্যাপবুকিং। সাথে মাঝে মধ্যে ব্লগ লেখা আর জাবর কাটা। এই নিয়েই চলছে জীবন বেশ।