কুইজ বিজয়ী

বাংলাদেশ বেতারের বেশ কিছু অনুষ্ঠানে নিয়মিত কুইজ থাকে। আর এই সব কুইজ বিজয়ীদের রেডিও সেট, টাকা / প্রাইজবন্ড সহ আরো নানা আকর্ষনীয় পুরস্কার দেয়া হয়। কোন কোন অনুষ্ঠানের বিজয়ীদের বেতার ভবনে অনুষ্ঠানের মাধ্যমে পুরস্কৃত করা হয়। 

আমি গত মাস ছয়েক ধরে বাংলাদেশ বেতারের এই সব কুইজে অংশগ্রহন করছি। এর মধ্যে ৩টি অনুষ্ঠানে বিজয়ী হয়েছি। 

জনসংখ্যা স্বাস্থ্য ও পুষ্টি সেলের ফেসবুক এ বেস্ট কন্ট্রিবিউটর পুরস্কার বিজয়ী 

পুরস্কার হিসেবে FEPE FP-1968BT রেডিও সেট পেয়েছি। 

সিনেরঙ ১৮৮ তম পর্বের বিজয়ী

পুরস্কার এখনও হাতে পাই নাই 



গত ৭ই এপ্রিল তারিখে প্রচারিত ক্রীড়াঙ্গন কুইজ বিজয়ী

এই পুরস্কার ও হাতে পাই নাই

বাংলাদেশ বেতারের এইসব অনুষ্ঠানের কুইজে নিয়মিত অংশ নিয়ে আপনিও বিজয়ী হতে পারেন। তো আর দেরী কেন। 

 

 

রিফাত জামিল ইউসুফজাই

জাতিতে বাঙ্গালী, তবে পূর্ব পূরুষরা নাকি এসেছিলো আফগানিস্তান থেকে - পাঠান ওসমান খানের নেতৃত্বে মোঘলদের বিরুদ্ধে লড়াই করতে। লড়াই এ ওসমান খান নিহত এবং তার বাহিনী পরাজিত ও পর্যূদস্ত হয়ে ছড়িয়ে পড়ে টাঙ্গাইলের ২২ গ্রামে। একসময় কালিহাতি উপজেলার চারাণ গ্রামে থিতু হয় তাদেরই কোন একজন। এখন আমি থাকি বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায়। কোন এককালে শখ ছিলো শর্টওয়েভ রেডিও শোনা। প্রথম বিদেশ ভ্রমণে একমাত্র কাজ ছিলো একটি ডিজিটাল রেডিও কেনা। ১৯৯০ সালে ষ্টকহোমে কেনা সেই ফিলিপস ডি ২৯৩৫ রেডিও এখনও আছে। দিন-রাত রেডিও শুনে রিসেপশন রিপোর্ট পাঠানো আর QSL কার্ড সংগ্রহ করা - নেশার মতো ছিলো সেসময়। আস্তে আস্তে সেই শখ থিতু হয়ে আসে। জায়গা নেয় ছবি তোলা। এখনও শিখছি এবং তুলছি নানা রকম ছবি। কয়েক মাস ধরে শখ হয়েছে ক্র্যাফটিং এর। মূলত গয়না এবং নানা রকম কার্ড তৈরী, সাথে এক-আধটু স্ক্র্যাপবুকিং। সাথে মাঝে মধ্যে ব্লগ লেখা আর জাবর কাটা। এই নিয়েই চলছে জীবন বেশ।