নতুন ডেস্কটপ পিসি

শেষ পর্যন্ত কোরবানি হতেই হলো।। আগের পিসি’তে ওভার হিটিং এর সমস্যা বার বার প্রব করছিলো।।  কাজের মাঝে হঠাৎ করে রিষ্টার্ট হওয়া অথবা স্লিপ মোডে চলে যাওয়া একই সাথে বিরক্তি আর কাজের ব্যাঘাত।। আর অভিজ্ঞতা বলে পিসি একবার সমস্যা শুরু করলে বার বারই সমস্যা হয় এবং এক এক করে নানা অংশ নষ্ট হতে থাকে।। তাই শেষ পর্যন্ত নতুন করে আবার তৈরী করার জন্য সব কিছু কিনে ফেললাম।।

কেসিং তো কয়েকদিন আগেই কিনেছিলাম।। আর ছিলো পুরাতন Corsair এর ৪৫০ ওয়াটের পাওয়ার সাপ্লাই।।  আর ছিলো ৩টি হার্ডডিস্ক আর একটি ডিভিডি রাইটার। শেষ পর্যন্ত অবশ্য দেখা গেলো ডিভিডি রাইটারটি অব্যবহারে নষ্ট হয়ে গেছে।।  বাসায় অবশ্য একটা পোর্টেবল ডিভিডি রাইটার আছে। প্রয়োজনে সেটি কাজে লাগানো যাবে।  আর আছে দুই বছর আগে কেনা ফিলিপস মনিটর

AMD RYZEN3

যা যা কিনেছি
১. কেসিং Antech GX202, এটি কিনেছি ষ্টারটেক কম্পিউটার থেকে।। দাম ৩৪০০.০০ টাকা
২.  মাদারবোর্ড Gigabyte GA-A320M-S2H এটি কিনেছি রায়ান্স কম্পিউটার থেকে।। দাম ৫৩০০.০০ টাকা।
৩. প্রসেসর AMD Ryzen 3 2200G রায়ানস থেকে কেনা।  দাম ৮০০০.০০ টাকা
৪. Leven 8 + 8 GB RAM, এটিও রায়ানস থেকে নেয়া।।  দাম ৩৫০০.০০ টাকা করে ৭০০০.০০ টাকা।
৫. এসএসডি WD Green 240GB M.2 SSD রায়ানস থেকে নেয়া, দাম ৩১০০.০০ টাকা।
৬. গ্রাফিক্স কার্ড Gigabyte NVIDIA GeForce GT 710 2GB DDR5 রায়ানস থেকে নেয়া।।  দাম ৫১০০.০০ টাকা

সব মিলিয়ে ওয়েব সাইটের দেয়া দাম থেকে মোট ৪০০ টাকা ছাড় পেয়েছি।  পরে দারাজ থেকে একটি Fantech  120mm RGB ফ্যান কিনেছিলাম ৬৪০.০০ টাকা দিয়ে। এখানে বলে রাখা ভাল কেসিং এর সাথে ৩টি ফ্যান ছিলো, যার দু’টি সাদা আলোর। অন্যটি নরমাল।। আর Leven 8 GB RAM এর সাথে হিটসিঙ্ক আর নীল LED লাইট ছিলো।।  তবে এই প্রোডাক্টি এখনও তাদের ওয়েব সাইটে দেয়া হয় নাই, তাই লিঙ্ক ও দেয়া গেলো না।।

কোন রকম ঝামেলা ছাড়াই সবকিছু এসেম্বল করতে পেরেছিলাম।।  সমস্যা হলো কেবল পুরাতন হার্ডডিস্ক থেকে অপারেটিং সিষ্টেম এসএসডি’তে ক্লোন করার সময়।।  দু’টো সফটওয়্যার দিয়ে ৩বার চেষ্টা করার পরও ক্লোন করতে পারি নাই। কি একটা এরর দেখিয়ে ৩বার ফেইল দেখাচ্ছিলো।  শেষপর্যন্ত নতুন করেই উইন্ডোজ ১০ সেটআপ করতে হলো।  সফটওয়্যার তেমন কিছু এখনও ইনষ্টল করা হয়নি।  ধীরে সুস্থ্যে করবো, নাহলে এটি রীতিমতো এক প্যারা।

এখন পর্যন্ত ডেস্কটপ পিসি ভাল মতোই চলছে, কোন সমস্যা পাই নি।।
সবাই’কে আসন্ন ঈদ উল আজহার শুভেচ্ছা।

 

 

রিফাত জামিল ইউসুফজাই

জাতিতে বাঙ্গালী, তবে পূর্ব পূরুষরা নাকি এসেছিলো আফগানিস্তান থেকে - পাঠান ওসমান খানের নেতৃত্বে মোঘলদের বিরুদ্ধে লড়াই করতে। লড়াই এ ওসমান খান নিহত এবং তার বাহিনী পরাজিত ও পর্যূদস্ত হয়ে ছড়িয়ে পড়ে টাঙ্গাইলের ২২ গ্রামে। একসময় কালিহাতি উপজেলার চারাণ গ্রামে থিতু হয় তাদেরই কোন একজন। এখন আমি থাকি বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায়। কোন এককালে শখ ছিলো শর্টওয়েভ রেডিও শোনা। প্রথম বিদেশ ভ্রমণে একমাত্র কাজ ছিলো একটি ডিজিটাল রেডিও কেনা। ১৯৯০ সালে ষ্টকহোমে কেনা সেই ফিলিপস ডি ২৯৩৫ রেডিও এখনও আছে। দিন-রাত রেডিও শুনে রিসেপশন রিপোর্ট পাঠানো আর QSL কার্ড সংগ্রহ করা - নেশার মতো ছিলো সেসময়। আস্তে আস্তে সেই শখ থিতু হয়ে আসে। জায়গা নেয় ছবি তোলা। এখনও শিখছি এবং তুলছি নানা রকম ছবি। কয়েক মাস ধরে শখ হয়েছে ক্র্যাফটিং এর। মূলত গয়না এবং নানা রকম কার্ড তৈরী, সাথে এক-আধটু স্ক্র্যাপবুকিং। সাথে মাঝে মধ্যে ব্লগ লেখা আর জাবর কাটা। এই নিয়েই চলছে জীবন বেশ।