ফটো আইডিয়া (৩)

মাঝে মধ্যে চিন্তায় পরতে হয় কিসের ছবি / কি ছবি তুলবো এই নিয়ে। এরকম ক্ষেত্রে আমি প্রথম যে কাজ করি তা হলো গুগলের সাহায্য নেই। কোন একটি বিষয় নিয়ে সার্চ করি, আর ইমেজ সার্চে যে ছবিগুলো আসে সে গুলি ভাল মতো দেখা এবং বোঝার চেষ্টা করি। ইদানিং ষ্টিল লাইফ আর ম্যাক্রো নিয়ে মাথা ঘামাচ্ছি বেশী। আর এসবের উদাহরণ প্রচুর। আরেক পথ হলো গুগলে সরাসরি … photo ideas লিখে সার্চ করা। শুরুতে যে কোন একটি শব্দ লিখে দিলেই হবে। ছবি এবং ভিডিও পাওয়া যায় অনেক।

আজকের ইউটিউব চ্যানেল হলো মাইক মোটস এর। নিজের নামেই চ্যানেল। খূব সাধারণ জিনিস নিয়ে অসাধারণ ক্লোজআপ এবং ম্যাক্রো ফটোগ্রাফি করেন। তার আরেকটি বিশেষত্ব হলো ঘরে বসে কিভাবে ছোটখাট জিনিস নিয়ে কাজ করা যায়। আমি মাত্র কিছুদিন আগেই তার চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করেছি। প্রথম ভিডিও’তেই দেখলাম তিনি কি কি জিনিস সংগ্রহ করে সেগুলোর ম্যাক্রো ফটোগ্রাফি করেন। সেই সব জিনিসের মধ্যে আছে কয়েন, বোতাম, চাবি, বিভিন্ন ধরণের সামুদ্রিক প্রাণীর খৌলস, পালক, বিবিন্ন গাছের পাতা ইত্যাদি। সেই সাথে ম্যাক্রো ফটোগ্রাফি সম্পর্কে বিভিন্ন ধরণের টিপস তো আছেই।

আমি প্রথম যে ভিডিও’টি দেখি সেটি নিচে দিলাম। তার চ্যানেলের বাকি সব ভিডিও পাবেন এই লিংকে

আজ এই পর্যন্তই। ভাল থাকবেন।
হ্যাপি ক্লিকিং।



রিফাত জামিল ইউসুফজাই

জাতিতে বাঙ্গালী, তবে পূর্ব পূরুষরা নাকি এসেছিলো আফগানিস্তান থেকে - পাঠান ওসমান খানের নেতৃত্বে মোঘলদের বিরুদ্ধে লড়াই করতে। লড়াই এ ওসমান খান নিহত এবং তার বাহিনী পরাজিত ও পর্যূদস্ত হয়ে ছড়িয়ে পড়ে টাঙ্গাইলের ২২ গ্রামে। একসময় কালিহাতি উপজেলার চারাণ গ্রামে থিতু হয় তাদেরই কোন একজন। এখন আমি থাকি বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায়। কোন এককালে শখ ছিলো শর্টওয়েভ রেডিও শোনা। প্রথম বিদেশ ভ্রমণে একমাত্র কাজ ছিলো একটি ডিজিটাল রেডিও কেনা। ১৯৯০ সালে ষ্টকহোমে কেনা সেই ফিলিপস ডি ২৯৩৫ রেডিও এখনও আছে। দিন-রাত রেডিও শুনে রিসেপশন রিপোর্ট পাঠানো আর QSL কার্ড সংগ্রহ করা - নেশার মতো ছিলো সেসময়। আস্তে আস্তে সেই শখ থিতু হয়ে আসে। জায়গা নেয় ছবি তোলা। এখনও শিখছি এবং তুলছি নানা রকম ছবি। কয়েক মাস ধরে শখ হয়েছে ক্র্যাফটিং এর। মূলত গয়না এবং নানা রকম কার্ড তৈরী, সাথে এক-আধটু স্ক্র্যাপবুকিং। সাথে মাঝে মধ্যে ব্লগ লেখা আর জাবর কাটা। এই নিয়েই চলছে জীবন বেশ।