ওয়েভ স্ক্যান

AWR অনেক বছর ধরেই Wave Scan নামে একটি DX প্রোগ্রাম প্রচার করে থাকে। আমি আগে (৮০/৯০ এর দশকে) রেডিও’তেই শুনতাম। কিন্তু বর্তমানে তারা শর্টওয়েভ ট্রান্সমিশন এতোই কমিয়ে দিয়েছে এশিয়ায় ইংরেজী অনুষ্ঠান নাই বললেই চলে। আপাতত তাই অনলাইনই ভরসা। মোবাইলে শুনতে চাইলে গুগল পডকাষ্ট এপ ডাউনলোড করে নিন। তারপর AWR Wave Scan লিখে সার্চ দিলেই পেয়ে যাবেন। সরাসরি শুনতে পারেন অথবা ডাউনলোড করে রাখতে পারেন।
 
গতকাল (৩১শে অক্টোবর ২০২১) অনেকদিন পর রেডিও’তে ওয়েভ স্ক্যান শুনলাম। ১৫৫৩০ কিলোহার্টজে রাত ৯:৩০ এ। রিসেপশন খূব ভাল ছিলো না। নয়েজ ছিলো অনেক। মাঝে মধ্যে কিছু কথা বুঝতে সমস্যাও হচ্ছিলো। রেকর্ড করেছিলাম বলে পরে শুনে রিসেপশন রিপোর্ট লিখেছি। 
 
আর ল্যাপটপ / ডেস্কটপ এ শুনতে চাইলে এই সাইট থেকে শুনতে পারেন। ডাউনলোড ও করতে পারেন। এখানে প্রতিটি পর্ব ক্রমানুসারে সাজানো আছে। AWR Wave Scan 

হ্যাপি ডিএক্সইং 
 
 

রিফাত জামিল ইউসুফজাই

জাতিতে বাঙ্গালী, তবে পূর্ব পূরুষরা নাকি এসেছিলো আফগানিস্তান থেকে - পাঠান ওসমান খানের নেতৃত্বে মোঘলদের বিরুদ্ধে লড়াই করতে। লড়াই এ ওসমান খান নিহত এবং তার বাহিনী পরাজিত ও পর্যূদস্ত হয়ে ছড়িয়ে পড়ে টাঙ্গাইলের ২২ গ্রামে। একসময় কালিহাতি উপজেলার চারাণ গ্রামে থিতু হয় তাদেরই কোন একজন। এখন আমি থাকি বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায়। কোন এককালে শখ ছিলো শর্টওয়েভ রেডিও শোনা। প্রথম বিদেশ ভ্রমণে একমাত্র কাজ ছিলো একটি ডিজিটাল রেডিও কেনা। ১৯৯০ সালে ষ্টকহোমে কেনা সেই ফিলিপস ডি ২৯৩৫ রেডিও এখনও আছে। দিন-রাত রেডিও শুনে রিসেপশন রিপোর্ট পাঠানো আর QSL কার্ড সংগ্রহ করা - নেশার মতো ছিলো সেসময়। আস্তে আস্তে সেই শখ থিতু হয়ে আসে। জায়গা নেয় ছবি তোলা। এখনও শিখছি এবং তুলছি নানা রকম ছবি। কয়েক মাস ধরে শখ হয়েছে ক্র্যাফটিং এর। মূলত গয়না এবং নানা রকম কার্ড তৈরী, সাথে এক-আধটু স্ক্র্যাপবুকিং। সাথে মাঝে মধ্যে ব্লগ লেখা আর জাবর কাটা। এই নিয়েই চলছে জীবন বেশ।