ফাইল ট্রান্সফার

মোবাইল থেকে পিসি কিংবা ভাইস ভার্সা, ফাইল ট্রান্সফার করতে গেলে মাঝে মধ্যে বেকায়দায় পড়তে হয়। সাধারণত ডেটা ক্যাবল দিয়েই কাজটা করি। কিন্তু অনেক সময় দেখা যায় ক্যাবল দিয়ে কিছু অংশ ট্রান্সফার হওয়ার পর কোন একটা এরর এর কারণে ট্রান্সফার বন্ধ হয়ে যায়। বেশীর ভাগ সময় এটা হয় ফল্টি ক্যাবলের কারণে। অনেক সময় ক্যাবল পাল্টানোর পরও প্রব করে। 

এরপর ফাইল ট্রান্সফার এর জন্য গুগল ড্রাইভ, ড্রপবক্স বা মেগা’র মতো অনলাইন ষ্ট্রোরেজ ব্যবহার শুরু করলাম। মানে মোবাইল থেকে এরকম কোন অনলাইন ষ্টোরেজে ফাইল আপলোড করতাম এবং পিসি দিয়ে সেই ফাইন ডাউনলোড করতাম। এতে সময় লাগতো দ্বিগুন। আর ইন্টারনেট স্পিড কম হলে তো আরো সমস্যা। 

কয়েকদিন আগে একজন Wifi FTP Server নামের এক এন্ড্রয়েড এপ এর কথা জানালো। আমি ইনষ্টল করে টেষ্টও করলাম। বেশ দ্রুত ফাইল ট্রান্সফার হয়। তবে পিসি এবং মোবাইলে একই ইন্টারনেট (ওয়াইফাই বা হটস্পট) লাইন ব্যবহার করতে হয়। 

প্রথমে মোবাইলে গুগল প্লে ষ্টোরে গিয়ে Wifi FTP Server লিখে সার্চ করুন এবং ইনষ্টল করে নিন। এবার এপটি চালু করুন। মোাইল স্ক্রিনে এমন দেখাবে

সেটিংস যা আছে আপাতত তাই থাকুক। এবার ষ্টার্ট বাটনে চাপ দিন, স্ক্রিনে এমন দেখাবে

এবার চলে আসুন আপনার কম্পিউটারে। This PC বা My Computer এর উপর মাই রেখে রাইট ক্লিক করুন (This PC বা My Computer এ ঢুকে ফাঁকা জায়গায় রাইট ক্লিক করলেও হবে)। নিচের মতো দেখাবে

Add a network location এ ক্লিক করুন। উইজার্ড ষ্টার্ট হবে

নেক্সট এ ক্লিক করুন

Choose a custom network location এ ক্লিক করে এবার নিচের নেক্সট বাটনে ক্লিক করুন

এবার Wifi FTP Server এপ থেকে পাওয়া এফটিপি সার্ভার এড্রেসটি উপরের ঘরে লিখে নেক্সট বাটনে ক্লিক করুন।

 

 

এবার এই নেটওয়ার্ক লোকেশনের একটা নাম দিতে পারেন। আমি আমার মোবাইল ব্র্যান্ড এর নাম দিয়েছি। নেক্সট এ ক্লিক করে এবার পুরো কাজটি শেষ করি।

এবার This PC বা My Computer এ গেলে ড্রাইভগুলির নিচে নেটওয়ার্ক লোকেশন দেখাবে।

Wifi FTP Server এপ এর সেটিংস এ গিয়ে আপনি ইউজার নেম / পাসওয়ার্ড দিয়ে এনেবল করে দিতে পারেন অথবা anonymous হিসেবেই লগইন করতে পারেন। নেটওয়ার্ক লোকেশনে ক্লিক করলে কোন ফোল্ডার ওপেন হবে সেটাও সেট করে দিতে পারেন। আমি মোবাইলের ইন্টারনাল মেমোরিতে My Computer নামে একটা ফোল্ডার তৈরী করেছি। প্রয়োজনীয় ফাইল এখানে (মোবাইল বা পিসি থেকে) কপি করে রাখি। এতে সহজেই খূজে পাই।

এই এপটি ডাউনলোড করতে পারবেন এই লিংক থেকে।

ভাল থাকুন।

রিফাত জামিল ইউসুফজাই

জাতিতে বাঙ্গালী, তবে পূর্ব পূরুষরা নাকি এসেছিলো আফগানিস্তান থেকে - পাঠান ওসমান খানের নেতৃত্বে মোঘলদের বিরুদ্ধে লড়াই করতে। লড়াই এ ওসমান খান নিহত এবং তার বাহিনী পরাজিত ও পর্যূদস্ত হয়ে ছড়িয়ে পড়ে টাঙ্গাইলের ২২ গ্রামে। একসময় কালিহাতি উপজেলার চারাণ গ্রামে থিতু হয় তাদেরই কোন একজন। এখন আমি থাকি বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায়। কোন এককালে শখ ছিলো শর্টওয়েভ রেডিও শোনা। প্রথম বিদেশ ভ্রমণে একমাত্র কাজ ছিলো একটি ডিজিটাল রেডিও কেনা। ১৯৯০ সালে ষ্টকহোমে কেনা সেই ফিলিপস ডি ২৯৩৫ রেডিও এখনও আছে। দিন-রাত রেডিও শুনে রিসেপশন রিপোর্ট পাঠানো আর QSL কার্ড সংগ্রহ করা - নেশার মতো ছিলো সেসময়। আস্তে আস্তে সেই শখ থিতু হয়ে আসে। জায়গা নেয় ছবি তোলা। এখনও শিখছি এবং তুলছি নানা রকম ছবি। কয়েক মাস ধরে শখ হয়েছে ক্র্যাফটিং এর। মূলত গয়না এবং নানা রকম কার্ড তৈরী, সাথে এক-আধটু স্ক্র্যাপবুকিং। সাথে মাঝে মধ্যে ব্লগ লেখা আর জাবর কাটা। এই নিয়েই চলছে জীবন বেশ।