ল্যাপটপ সমাচার (১)

চাচাত ভাই আমাকে একটা ল্যাপটপ উপহার দিয়েছিলেন বছর তিনেক আগে। সেটি অবশ্য কিনেছিলেন তার নিজের জন্যই। আমাকেও সাথে নিয়েছিলেন। কেনার কয়েকদিন পরেই গেলেন আমেরিকা, ফিরে এসে জানালেন্ ল্যাপটপটি নাকি তার জন্য একটু ভারী হয়ে গেছে। হাতে বা কাঁধের ব্যাগে নিয়ে চলতে অসুবিধা হয়। ভদ্রলোকের বয়স অবশ্য ৭০ এর কাছাকাছি, তারপর হার্টের সমস্যা সহ আরো নানা কিছু তো আছেই। এরপর ল্যাপটপটি আমাকে দিয়ে দিলেন এবং আরো কিছুদিন পর আবার  আরেকটা কিনলেন।

যাই হোক। এরপর থেকে ল্যাপটপটি আমার কাছেই আছে। এমনিতে ল্যাপটপে তেমন কোন কাজ নাই, মূভি দেখি / গান শুনি এসব। মাঝে মধ্যে ডিএসএলআর ক্যামেরা টিথারিং করে ছবি তুলি বা ভিডিও করি। এটার কি বোর্ড অবশ্য কাজ করে না, একটা ছোট ওয়্যারলেস কিবোর্ড দিয়ে কাজ চালাই।

এটার উইন্ডোজ পাইরেটেড। এন্ড্রয়েড মোবাইল এপস চালানোর জন্য ব্লুষ্ট্যাকস ইনষ্টল করেছিলাম, এরপর থেকে ব্যাপক স্লো। তাই ভাবলাম নতুন করে উইন্ডোজ ইনষ্টল করি। সাথে সিরিয়াল কি কিনে এবার জেনুইন উইন্ডোজ ব্যবহার করবো। অর্ডার করার মিনিট দশেকের মধ্যে সিরিয়াল কি চলে আসলো।

কিন্তু উইন্ডোজ ইনষ্টল করার সময় বা পরে যখনই অনলাইনে যাচ্ছি, তখনই ল্যাপটপ এ প্রব দেখিয়ে রিষ্টার্ট করছে। রিষ্টার্ট করার পরই আবার রিষ্টার্ট এভাবেই চলতে থাকে। পরে বাটন চেপে ফোর্স শাটডাউন করতে হয়। এপর্যন্ত ৩/৪ বার ইনষ্টল দিলাম একই কাহিনী। উইন্ডোজ ডাউনলোড করেছি মাইক্রোসফট সাইট থেকেই। সিরিয়াল কি দেয়ার চান্সই পাচ্ছি না।

কি এক বিকট সমস্যা।

রিফাত জামিল ইউসুফজাই

জাতিতে বাঙ্গালী, তবে পূর্ব পূরুষরা নাকি এসেছিলো আফগানিস্তান থেকে - পাঠান ওসমান খানের নেতৃত্বে মোঘলদের বিরুদ্ধে লড়াই করতে। লড়াই এ ওসমান খান নিহত এবং তার বাহিনী পরাজিত ও পর্যূদস্ত হয়ে ছড়িয়ে পড়ে টাঙ্গাইলের ২২ গ্রামে। একসময় কালিহাতি উপজেলার চারাণ গ্রামে থিতু হয় তাদেরই কোন একজন। এখন আমি থাকি বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায়। কোন এককালে শখ ছিলো শর্টওয়েভ রেডিও শোনা। প্রথম বিদেশ ভ্রমণে একমাত্র কাজ ছিলো একটি ডিজিটাল রেডিও কেনা। ১৯৯০ সালে ষ্টকহোমে কেনা সেই ফিলিপস ডি ২৯৩৫ রেডিও এখনও আছে। দিন-রাত রেডিও শুনে রিসেপশন রিপোর্ট পাঠানো আর QSL কার্ড সংগ্রহ করা - নেশার মতো ছিলো সেসময়। আস্তে আস্তে সেই শখ থিতু হয়ে আসে। জায়গা নেয় ছবি তোলা। এখনও শিখছি এবং তুলছি নানা রকম ছবি। কয়েক মাস ধরে শখ হয়েছে ক্র্যাফটিং এর। মূলত গয়না এবং নানা রকম কার্ড তৈরী, সাথে এক-আধটু স্ক্র্যাপবুকিং। সাথে মাঝে মধ্যে ব্লগ লেখা আর জাবর কাটা। এই নিয়েই চলছে জীবন বেশ।