ফটোশপ : ব্যাকগ্রাউন্ড পরিবর্তন

ব্যাকগ্রাউন্ড বিভিন্ন ভাবেই অপসারণ করা যায়। এক হলো ছবির সাবজেক্ট / ব্যাকগ্রাউন্ড সিলেক্ট করে প্রয়োজনীয় অংশটি রেখে বাকিটা অপসারণ করা। এজন্য সিলেকশন টুল, ল্যাসো টুল, পেন টুল ইত্যাদি আছে। পেনটুল দিয়ে সিলেকশন খূব ভালভাবে করা যায়। আবার এসব টুল ব্যবহার না করেও মোটামুটি কয়েক ক্লিকেও কাজটি করা যায়। যদিও সব ক্ষেত্রে খূব ভাল ফলাফল হয়তো আপনি পাবেন না। বিশেষ করে হিবিজিবি ব্যাকগ্রাউন্ডে খোলা / আউলানো চুল থাকলে সেটি একটি বিশাল সমস্যা। তারপরও দ্রুত কাজ করার জন্য এই পদ্ধতি অনেক সময় কাজে লাগে।

আমি আপাতত এডোবি ফটোশপ সিসি ২০২০ ব্যবহার করছি। এই পদ্ধতি শুধূমাত্র এই ভার্শনেই পাবেন। মোটামুটি কয়েক ক্লিকেই ব্যাকগ্রাউন্ড অপসারণ করা যায়। আসুন তাহলে শুরু করি।

ফটোশপ চালু করে একটি ফটো ওপেন করলাম। এই ছবিটি আমি Pixabay থেকে ডাউনলোড করেছি। এই সাইট থেকে আপনি ফটো ইত্যাদি ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারেন প্রয়োজনীয় ক্রেডিট দিয়ে। নিচের ঠবির মতো দেখাবে।পাশের লেয়ার প্যালেটে খেয়াল করে দেখুন ছবিটি যে লেয়ারে দেখাচ্ছে তার সাথে একটি তালার আইকন আছে, এটি লক। এটি না খুললে প্রয়োজনীয় কাজ করতে পারবেন না। মাউস পয়েন্টার দিয়ে কেবল ক্লিক করলেই তালা / লক খুলে যাবে। লক খুলে ফেলি। এখন লেয়ার প্যালেটের উপরে যে প্রোপার্টিজ প্যালেট আছে সেখানে নতুন অপশন দেখা যাচ্ছে। নিচের ছবিটি খেয়াল করুন
Remove Background এই অপশনে ক্লিক করুন। কিছুক্ষণের মধ্যেই মেয়েটির পিছনের ব্যাকগ্রাউন্ড অপসারিত হবে। এখন ফটো নিয়ে আপনি অন্য কোন ফটোর উপর বসাতে পারেন।
যাদের পোষ্ট পড়ে পুরো বিষয়টি বুঝতে সমস্যা হচ্ছে বা হয়েছে তারা এই ভিডিওটি দেখে নিতে পারেন। আশা করি ষ্টেপ বাই ষ্টেপ বুঝতে পারবেন। এখানে বলে রাখা ভাল এই ভিডিও’তে গত পোষ্ট এবং এই পোষ্টের বিষয়গুলি দেখানো হয়েছে।

ফটোশপ সিসি ২০১৯/২০ এ যেভাবে কোন ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড পরিবর্তন করবেন

Posted by রিফাত জামিল ইউসুফজাই on Sunday, 26 July 2020


আশা করি নিয়মিত প্র্যাকটিস করলে খূব সহজেই ফটোশপ রপ্ত করতে পারবেন।

ভাল থাকুন।

ফটো ক্রেডিট : Bindi / Pixabay

 

রিফাত জামিল ইউসুফজাই

জাতিতে বাঙ্গালী, তবে পূর্ব পূরুষরা নাকি এসেছিলো আফগানিস্তান থেকে - পাঠান ওসমান খানের নেতৃত্বে মোঘলদের বিরুদ্ধে লড়াই করতে। লড়াই এ ওসমান খান নিহত এবং তার বাহিনী পরাজিত ও পর্যূদস্ত হয়ে ছড়িয়ে পড়ে টাঙ্গাইলের ২২ গ্রামে। একসময় কালিহাতি উপজেলার চারাণ গ্রামে থিতু হয় তাদেরই কোন একজন। এখন আমি থাকি বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায়। কোন এককালে শখ ছিলো শর্টওয়েভ রেডিও শোনা। প্রথম বিদেশ ভ্রমণে একমাত্র কাজ ছিলো একটি ডিজিটাল রেডিও কেনা। ১৯৯০ সালে ষ্টকহোমে কেনা সেই ফিলিপস ডি ২৯৩৫ রেডিও এখনও আছে। দিন-রাত রেডিও শুনে রিসেপশন রিপোর্ট পাঠানো আর QSL কার্ড সংগ্রহ করা - নেশার মতো ছিলো সেসময়। আস্তে আস্তে সেই শখ থিতু হয়ে আসে। জায়গা নেয় ছবি তোলা। এখনও শিখছি এবং তুলছি নানা রকম ছবি। কয়েক মাস ধরে শখ হয়েছে ক্র্যাফটিং এর। মূলত গয়না এবং নানা রকম কার্ড তৈরী, সাথে এক-আধটু স্ক্র্যাপবুকিং। সাথে মাঝে মধ্যে ব্লগ লেখা আর জাবর কাটা। এই নিয়েই চলছে জীবন বেশ।